• বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:৩১ পূর্বাহ্ন |
শিরোনাম :
ছত্তিশগড়ে নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে সংঘর্ষ, শীর্ষ মাওবাদী নেতাসহ নিহত ২৯ হাতি দিয়ে চাঁদাবাজির দায়ে দুই যুবককে ৬ মাসের কারাদণ্ড খানসামায় ৩৫ শতক জমির পটল গাছ উপড়ে দিলো দূর্বৃত্তরা ফুলবাড়ীতে বৈশাখী মঞ্চে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা দিলেন পৌর মেয়র নীলফামারীতে প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে ৬ ব্যক্তি কারাগারে নুরের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও তাঁর ভাইসহ তিনজনকে অপহরণ ইরানের ওপর মার্কিন হামলার অনুমতি দিচ্ছে না উপসাগরীয় দেশগুলো নদীতে গোসলে নেমে নিখোঁজ ২ ভাইয়ের লাশ উদ্ধার পদ্মা নদীতে গোসলে নেমে নিখোঁজ ২ শিশু

সাড়ে ১১ হাজার কোটি টাকার কৃষি ঋণ বিতরণ

Taka-2ঢাকা : চলতি ২০১৩-২০১৪ অর্থবছরের জুলাই থেকে মার্চ পর্যন্ত ৯ মাসে ১১ হাজার ৪৪৬ কোটি টাকার কৃষি ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ১২ দশমিক ২১ শতাংশ বেশি ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। বিগত ২০১২-২০১৩ অর্থবছরের একই সময়ে কৃষিখাতে বিতরণকৃত ঋণের পরিমাণ ছিল ১০ হাজার ২০০ কোটি টাকা। সে তুলনায় চলতি অর্থবছরের ৯ মাসে ১২৪৬ কোটি টাকার বেশি ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। যা শতাংশের হিসেবে ১২ দশমিক ২১ শতাংশ বেশি। চলতি অর্থবছরে ১৪ হাজার ৫৯৫ কোটি টাকা কৃষিঋণ বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে। সে হিসেবে প্রথম নয় মাসে লক্ষ্যমাত্রার ৭৮ দশমিক ৪২ শতাংশ ঋণ বিতরণ হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে এ সব তথ্য পাওয়া গেছে।
কৃষিখাতে নিয়মিতভাবে ঋণ প্রবাহ বৃদ্ধি প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কৃষিঋণ ও আর্থিক সেবাভূক্তি বিভাগের মহাব্যবস্থাপক প্রভাষ চন্দ্র মল্লিক বলেন, গত ৩ থেকে ৪ মাস বোরো আবাদের কারনে মাঠ পর্যায়ে ঋণের চাহিদা বেশি ছিল। এছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংক লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী কৃষিখাতে ঋণ বিতরণের জন্য বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে নিয়মিত মনিটরিং করছে। ফলে রাষ্ট্রায়াত্ত্ব ব্যাংকের মতো বেসরকারী খাতের ব্যাংকগুলোও কৃষিঋণ বিতরণের ক্ষেত্রে আগ্রহ দেখাচ্ছে। এসব কারনেই মূলত কৃষিঋণ উল্লেখ্যযোগ্য হারে বাড়ছে। বছর শেষে কৃষিঋণ বিতরণ লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
আলোচ্য সময়ে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বাণিজ্যিক ও বিশেষায়িত ব্যাংকের পাশাপাশি বেসরকারী মালিকানাধীন ব্যাংকসমূহ পর্যাপ্ত পরিমাণ ঋণ বিতরণ করলেও বরাবরের মতো বিদেশী ব্যাংকগুলো এ ক্ষেত্রে পিছিয়ে আছে। এ সময়ে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বাণিজ্যিক ও বিশেষায়িত ব্যাংক মিলে ৭ হাজার ২২১ কোটি ৪৬ লাখ এবং বেসরকারী মালিকানাধীন দেশী ও বিদেশী ব্যাংকসমূহ ৪ হাজার ২২৪ কোটি ৩৩ লাখ টাকার ঋণ বিতরণ করেছে। বরাবরের মতো চলতি অর্থবছরের প্রথম নয় মাসে সবচেয়ে বেশী ঋণ বিতরণ করেছে বিশেষায়িত খাতের বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক ৪ হাজার ১৬৪ কোটি ৯৪ লাখ টাকা। এরপর রয়েছে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক ৯৬৯ কোটি ৮৩ লাখ এবং সোনালী ব্যাংক ৮৬৩ কোটি ২১ লাখ টাকা।
বেসরকারী খাতের ব্যাংকের মধ্যে ইসলামী ব্যাংক সবচেয়ে বেশী এক হাজার ১১০ কোটি ৮৬ লাখ টাকা ঋণ বিতরণ করেছে। তবে এ সময়ে বেসরকারী খাতের বিদেশী মালিকানাধীন ৩টি ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তান, স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া এবং ওরি ব্যাংক লিমিটেড কোন কৃষি ঋণ বিতরণ করেনি। বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে দেখা যায়, ফসল উৎপাদন খাতে ব্যাংকগুলো ৫ হাজার ২০৭ কোটি ৩৫ লাখ, দারিদ্র বিমোচনে এক হাজার ৩৮০ কোটি, প্রাণিসম্পদ ও পোল্ট্রি খাতে এক হাজার ৩১২ কোটি ৬১ লাখ এবং মৎস্য খাতে ৯২৭ কোটি ২৫ লাখ টাকা বিতরণ করেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আর্কাইভ