• শুক্রবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৪:১৬ অপরাহ্ন |

জলঢাকায় পূজার ঘর ভাংচুর

Vangcurজলঢাকা (নীলফামারী) প্রতিনিধি: নীলফামারীর জলঢাকায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে শুক্রবার ভোররাতে এক সংখ্যালঘু পরিবারের পূজার ঘর ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি উপজেলার শৌলমারী ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের সিংড়িয়া কালিরডাঙ্গা এলাকায়। শুক্রবার সকালে সরেজমিনে ওই এলাকার মধূসুধন রায়ের ছেলে তিলক চন্দ্রের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, তার থাকার ঘরের পাশে পারিবারিক পূজার ঘরটি ভাঙ্গা অবস্থায় পড়ে আছে। অনেক উৎসুক মানুষজনের মাঝ থেকে বেরিয়ে এসে তিলক চন্দ্রের স্ত্রী ভুবেশ্বরী এ প্রতিবেদককে বলেন,‘পার্শ্ববর্তী মৃত কালা উদ্দিনের ছেলের ফজলু, জব্বার, আকবর, জবান, দেলাবর, ভোরে আকস্মিক ভাবে আমার বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে লুট করে তারা যাওয়ার সময় আমার পুজার ঘরটি ভাংচুর করে’। ওই এলাকার মৃত নছিম উদ্দিনের ছেলে জামিয়ার রহমান বলেন,‘দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে বিরোধ থাকায় এ পরিবারটির উপর ফজলু গং দফায় দফায় হামলা করে আসছে’। স্থানীয় ভাবে বিচার সালিশ হলেও তারা মানছে না। এদিকে পূজার ঘর ভাংচুরের অভিযোগ অস্বীকার করে মৃত কালা উদ্দিনের ছেলে ফজলু বলেন,‘জমি নিয়ে মামলা থাকায় আমরা ওই জমিতে যাই না। তবে গতকালের ঘটনাটি গাছের কাঁঠাল ছেড়াকে কেন্দ্র করে আমাদেরকে ফাসানোর জন্য তিলক চন্দ্র নিজের পুজার ঘর নিজেই ভেঙ্গেছে। এবিষয়ে জলঢাকা থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামান মনির জানান, ‘এব্যাপারে থানায় কোন মামলা হয়নি’।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আর্কাইভ