• শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০৩:২২ পূর্বাহ্ন |
শিরোনাম :
বেঞ্চ ও বারের সুসম্পর্কের মধ্য দিয়ে বিচার ব্যবস্থা সমৃদ্ধ হয়- নীলফামারীতে প্রধান বিচারপতি সৈয়দপুর বিজ্ঞান কলেজ চত্ত্বর থেকে কিশোরের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার  নীলফামারী শহরে অগ্নিকান্ডে ৫ দোকান পুড়ে ছাই জলঢাকায় মিন্টু, কিশোরগঞ্জে রশিদুল, সৈয়দপুরে রিয়াদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্রের বিষদাত ভেঙে দেওয়া হবে: নানক সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভজে পুত্রের জয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য মাউশির ৯ নির্দেশনা ভোটের আগেই জামিন পেলেন চেয়ারম্যান প্রার্থী ফুলবাড়ীতে ৪৮ রোগী পেল ২৪ লাখ টাকার চিকিৎসা সহায়তার চেক ফুলবাড়ীতে চারটি চোরাই গরু উদ্ধার, গ্রেফতার তিন

দিনাজপুরে ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের পিঁপড়া নিয়ে গবেষণা

Press Confarance Picদিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুর ম্যাথ ক্লাবের ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের “পিঁপড়া নিয়ে গবেষনা” শিশু-কিশোর বিজ্ঞান কংগ্রেস’১৫ এর সেরা পোস্টার নির্বাচিত হয়েছে।
বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে দিনাজপুর প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে দিনাজপুরের ক্ষুদে বিজ্ঞানী সাহিবা নোশিন এষা লিখিত বক্তব্যে জানান, গত ২১-২২ আগষ্ট ২০১৫ তারিখে ঢাকার আগারগাওস্থ বাংলাদেশ জাতীয় বিজ্ঞান প্রযুক্তি জাদুঘরে অনুষ্ঠিত হয়েছিল দেশের ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের সবচেয়ে বড় মিলনমেলা। “শিশু-কিশোর বিজ্ঞান কংগ্রেস-২০১৫”। সারা বাংলাদেশ থেকে আগত প্রায় ৬০০ জন ক্ষুদে বিজ্ঞানীর পদচারণায় মুখরিত ছিল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর। দ্যা কংগ্রেস’ অর্থ্যাৎ দেশের সেরা বৈজ্ঞানিক পোস্টারের খেতাব অর্জন করেছিলাম।
আমাদের গবেষনা ছিল মূলত পিঁপড়াদের নিয়ে যার শিরোনাম ছিল ‘পিঁপড়ার জীবন ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উপর পারিপার্শ্বিকের প্রভাব অনুসন্ধান’। এ গবেষণায় আমরা দেখিয়েছি যে পিঁপড়ার জীবনযাত্রার উপর বিভিন্ন পারিপার্শ্ব যেমনঃ তাপমাত্রা, আলো-অন্ধকার, খাদ্যের ভিন্নতা ইত্যাদি কিরুপ প্রভাব বিস্তার করে। পিঁপড়া পরিবেশের উপর কেমন প্রভাব ফেলে, পিঁপড়া খাদ্য খোঁজা ও সংগ্রহের জন্য কেমন করে চলাচল করে, কিভাবে একে অপরের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে, তাদের চলাচল কোন প্যাটার্ণ মেনে চলে ইত্যাদিও খুঁজে বের করার চেষ্টা করেছি।
এ গবেষনায় আমরা কিছু চমৎকার তথ্য খুজে পেয়েছিলাম যা হলো, পিঁপড়ারা একে অপরের সাথে স্পর্শ, এন্টেনা ও শব্দ এ তিন পদ্ধতিতে যোগাযোগ করে থাকে, খাদ্য খোঁজার জন্য একটি নির্দিষ্ট প্যাটার্ণ মেনে চলে, খাদ্য ও কলোনির রাস্তা নির্দিষ্ট করার জন্য ফেরোমন নিঃসরণ করে। আমাদের প্রাপ্ত ফলাফলগুলি গানিতিক বিভিন্ন সমস্যা সমাধান, ছোট স্থানে ডাটা ট্রান্সকিমেশন, কম্পিউটার এ্যালগরিদম তৈরি প্রভৃতি কাজে ব্যবহার করা যায়।
আমাদের পিঁপড়ার উপর এ পোস্টার দেখে স্যার রেজাউর রহমান, স্যার জাফর ইকবালসহ উপস্থিত সকলেই চমৎকৃত হয়েছিলেন। ফলাফল ঘোষনার সময় বিজ্ঞান বিষয়ক উপদেষ্টা স্থপতি ইয়াফেজ ওসমানের কাছ থেকে আমরা বিজয়ী স্মারক গ্রহণ করেছিলাম। সারা বাংলাদেশে এত সব ভালো প্রজেক্টের মধ্যে প্রথম হওয়া আমাদের জন্য অনেক গর্বের ব্যাপার ছিল। দেশকে জ্ঞানে-বিজ্ঞানে উন্নত করতে হলে আমাদের এমন আরো বিজ্ঞান ভিত্তিক কাজ করতে হবে। আর এজন্য আমরা ভবিষ্যতে আরও বিজ্ঞান ভিত্তিক কাজ করতে চাই।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ক্ষুদে বিজ্ঞানী সামিন ইয়াসার, দিনাজপুর গণিত ক্লাবের সভাপতি মকিদ হায়দার শিপন, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী খন্দকার প্রমুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আর্কাইভ