• শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:৫৬ অপরাহ্ন |

ইজারাদার ও অদক্ষ মাঝিকে অভিযুক্ত করে প্রতিবেদন দাখিল

সিসি নিউজ ডেস্ক ।। পঞ্চগড়ের করতোয়া নদীর আউলিয়ার ঘাটে নৌকাডুবির ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটি রোববার তাদের প্রতিবেদন জমা দিয়েছে। প্রতিবেদনে নৌকাডুবির কারণ হিসেবে ইজারাদারের গাফিলতি, অদক্ষ মাঝি, ধর্মীয় কুসংস্কার, অসচেতনতা, অতিরিক্ত যাত্রী, নৌকায় ত্রুটিসহ বেশ কিছু বিষয় চিহ্নিত করা হয়েছে। একই সঙ্গে প্রতিবেদনে একটি সুপারিশমালাও দিয়েছে তারা।

সোমবার দুপুরে জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে নৌকাডুবির ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ৯টি পরিবারকে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের অর্থ সহায়তা অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম। তবে প্রতিবেদন নিয়ে তিনি বিস্তারিত কোনো তথ্য প্রকাশ করতে রাজি হননি।

গত ২৫ সেপ্টেম্বর বোদার আউলিয়ার ঘাটে মর্মান্তিক নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ৬৯ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছেন তিনজন। ঘটনার পর পরই পঞ্চগড়ের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দীপঙ্কর রায়কে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে জেলা প্রশাসন। তিন দিনের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশনা থাকলেও পরে আরও তিন কর্মদিবস সময় বাড়ানো হয়। রোববার তারা প্রতিবেদন জমা দেয়।
তদন্ত কমিটির প্রধান ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট দীপঙ্কর রায় বলেন, আমরা মরদেহ উদ্ধারসহ তাৎক্ষণিক খোলা তথ্যকেন্দ্রেও দায়িত্ব পালন করি। এ জন্য তিন দিন সময় চেয়ে আবেদন করা হয়েছিল। রোববার জেলা প্রশাসক মহোদয় বরাবর সেই প্রতিবেদন দাখিল করা হয়েছে।
জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম বলেন, আমরা তদন্ত প্রতিবেদন সরকারের কাছে পাঠিয়েছি। তাদের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করব। নৌকাডুবির ঘটনায় ইজারাদার এবং অদক্ষ মাঝির দায় রয়েছে। এ ছাড়া ৭-৮টি কারণ চিহ্নিত করা হয়েছে প্রতিবেদনে। প্রতিবেদনে কিছু সুপারিশও তুলে ধরা হয়েছে। একই সঙ্গে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসও ঘটনার তদন্ত করছে। তিনটি রিপোর্ট জমা হওয়ার পর নির্দেশনা অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Comments are closed.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ