• শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০৪:১৭ পূর্বাহ্ন |
শিরোনাম :
বেঞ্চ ও বারের সুসম্পর্কের মধ্য দিয়ে বিচার ব্যবস্থা সমৃদ্ধ হয়- নীলফামারীতে প্রধান বিচারপতি সৈয়দপুর বিজ্ঞান কলেজ চত্ত্বর থেকে কিশোরের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার  নীলফামারী শহরে অগ্নিকান্ডে ৫ দোকান পুড়ে ছাই জলঢাকায় মিন্টু, কিশোরগঞ্জে রশিদুল, সৈয়দপুরে রিয়াদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্রের বিষদাত ভেঙে দেওয়া হবে: নানক সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভজে পুত্রের জয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য মাউশির ৯ নির্দেশনা ভোটের আগেই জামিন পেলেন চেয়ারম্যান প্রার্থী ফুলবাড়ীতে ৪৮ রোগী পেল ২৪ লাখ টাকার চিকিৎসা সহায়তার চেক ফুলবাড়ীতে চারটি চোরাই গরু উদ্ধার, গ্রেফতার তিন

ফুলবাড়ীতে দুই পিকআপের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি।। দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে দুটি পিকআপের মুখোমুখি সংঘর্ষে রহিমা বেগম (৩৬) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। ওই সময় ট্রাক-পিকআপসহ সাতটি যানবাহন খাদে পড়ে ৮ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় এলাকাবাসী ক্ষিপ্ত হয়ে সকাল ৬টা থেকে সড়ক অবরোধ করে যানচলাচল বন্ধ করে দেন। দুপুর ১২টায় উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে ছয় ঘণ্টা পর যানচলাচল স্বাভাবিক হয়।

আজ শনিবার ভোরে দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের উপজেলার বিজিবি ক্যাম্প সংলগ্ন ডাঙ্গাপাড়া মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত রহিমা বেগম দিনাজপুর জেলার কাহারোল উপজেলার পাহাড়পুর এলাকার আব্দুল খালেকের স্ত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ ভোরে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির মধ্যে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা একটি পিকআপ কাহারোল যাওয়ার পথে উপজেলার ডাঙ্গাপাড়া নামকস্থানে মোড় ঘোরানোর সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বিপরীত দিক থেকে আসা অপর একটি আমবাহী পিকআপের  সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় পিকআপের  যাত্রী রহিমা বেগম নিহত হন। এ সময় একই পরিবারের তিনজন আহত হন। তখন সংঘর্ষ থেকে বাঁচতে আরও ৫টি পিকআপ, একটি যাত্রীবাহী বাস ও একটি ট্রাকসহ সাতটি যানবাহন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। যাত্রীবাহী বাস ও মালবাহী ট্রাকটি উল্টে যায় এবং একটি গাড়ি বিদ্যুতের খুঁটির সঙ্গে ধাক্কা লেগে বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙে যায়। এতে ট্রাকের চালক ও হেলপারসহ আরও ৫ জন আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মাদ জাফর আরিফ চৌধুরী বলেন, দুর্ঘটনার পর এলাকাবাসী মহাসড়কে গতিরোধক স্থাপনের দাবি জানিয়েছেন। জেলা প্রশাসনসহ সড়ক ও জনপদের সঙ্গে কথা বলে গতিরোধক স্থাপনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

ফুলবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশরাফুল ইসলাম জানান, দুর্ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় বাসিন্দারা সড়ক অবরোধ করে গতিরোধক স্থাপনের দাবি জানালে, উপজেলা ও জেলা প্রশাসন সড়কে গতিরোধক স্থাপনের আশ্বাস দেয়। পরে এলাকাবাসী সড়ক অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয়। এতে সড়কে যানচলাচল স্বাভাবিক হয়। নিহত রহিমা বেগমের মরদেহ উদ্ধার করে তাঁর পরিবারের নিকট হস্তান্তর করার প্রক্রিয়া চলছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Comments are closed.

আর্কাইভ