• শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০৪:১৬ পূর্বাহ্ন |
শিরোনাম :
বেঞ্চ ও বারের সুসম্পর্কের মধ্য দিয়ে বিচার ব্যবস্থা সমৃদ্ধ হয়- নীলফামারীতে প্রধান বিচারপতি সৈয়দপুর বিজ্ঞান কলেজ চত্ত্বর থেকে কিশোরের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার  নীলফামারী শহরে অগ্নিকান্ডে ৫ দোকান পুড়ে ছাই জলঢাকায় মিন্টু, কিশোরগঞ্জে রশিদুল, সৈয়দপুরে রিয়াদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্রের বিষদাত ভেঙে দেওয়া হবে: নানক সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভজে পুত্রের জয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য মাউশির ৯ নির্দেশনা ভোটের আগেই জামিন পেলেন চেয়ারম্যান প্রার্থী ফুলবাড়ীতে ৪৮ রোগী পেল ২৪ লাখ টাকার চিকিৎসা সহায়তার চেক ফুলবাড়ীতে চারটি চোরাই গরু উদ্ধার, গ্রেফতার তিন

ফুলগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান একরামকে গুলি হত্যা

akram_37605সিসিনিউজ: ফেনীর ফুলগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি একরামুল হক একরামকে প্রকাশ্য কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যার পর গাড়িতে আগুন ধরিয়ে লাশ পুড়িয়ে ফেলেছে দুস্কৃতিকারীরা। আজ মঙ্গলবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে শহরের অ্যাকাডেমি রোডস্থ বিলাসী সিনেমা হলের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে তার সমর্থকরা সদর হাসপাতাল মোড এলাকায় ও ফুলগাজীর বিভিন্ন স্থানে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে অতিরিক্ত পুলিশ, বিজিবি ও র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে।
পুলিশ, প্রত্যক্ষদর্শী ও দলীয় সূত্র জানায়, সকাল ১০টা ৫০ মিনিটে শহরের বাসা থেকে ফুলগাজী যাওয়ার পথে বিলাসী সিনেমার সামনে গুলি ও বোমা ফাটিয়ে একদল দুস্কৃতিকারী তার ব্যক্তিগত প্যাডো গাড়ি গতিরোধ করে। গাড়ির সামনের আসনে চালক মামুন ও একরাম চেয়ারম্যান ছাড়াও পেছনের আসনে ব্যবসায়িক পার্টনার হোসেন, ফুলগাজী সদর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন সামু, দৈনিক ফেনী প্রতিদিনের নির্বাহী সম্পাদক মহিব্ব্ল্লুাহ ফরহাদ ছিলেন। হামলাকারীরা গাড়িটি ঘিরে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে।
মহিব্বুল্লাহ ফরহাদ জানান, অন্যরা আহত অবস্থায় দৌঁড়ে নামতে পারলেও একরামের বুকে বন্দুক ঠেকিয়ে গুলি করে মৃত্যু নিশ্চিত করে একপর্যায়ে গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয় দুস্কৃতিকারীরা। এসময় গুলি ও বোমার শব্দে পুরো এলাকা প্রকম্পিত হয়ে উঠে। আতঙ্কে দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়। হামলাকারীরা সরে পড়লে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ফেনী আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। আহতদের গাড়ী চালক মামুন ও হোসেনকে গুরুতর অবস্থায় ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। ফরহাদ ও সামু ফেনী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
এদিকে উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা একরামকে হত্যার খবর ছড়িয়ে পড়লে ফেনী ও ফুলগাজীতে তার সমর্থকরা যানবাহন ও দোকানপাটে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে অতিরিক্ত পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি মোতায়েন রয়েছে বলে পুলিশ সুপার অফিস সূত্র নিশ্চিত করেছেন।
অপরদিকে একরামের লাশের ডিএনএ পরীক্ষার জন্য কিছুক্ষনের মধ্যে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে বলে সদর হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আর্কাইভ