• শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ১০:৫০ অপরাহ্ন |

নীলফামারীর ম্যাজিস্ট্রেটের মামলায় স্বামী কারাগারে

সিসি নিউজ ।। নীলফামারীর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পপি খাতুনের দায়েরকৃত মামলায় স্বামী মোহাইমেনুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ শনিবার দুপুরে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ উপজেলার মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের জীবনপুর গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে। পরে দুপুরে গোবিন্দগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হলে বিচারক নাজমুল হাসান তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

পপি খাতুন গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের জীবনপুর গ্রামের মৃত আব্দুল জলিলের মেয়ে। তিনি নীলফামারীর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সিনিয়র সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পদে কর্মরত। আর মোহাইমেনুল ওই গ্রামের মাকসুদুর রহমানের ছেলে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা গোবিন্দগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) প্রলয় কুমার বর্মা বলেন, ‘গত বৃহস্পতিবার গোবিন্দগঞ্জ পৌর শহরের বোয়ালিয়া গ্রামে ভগ্নিপতি সোহরাবের বাড়িতে আসেন পপি খাতুন। শুক্রবার দুপুরে মোহাইমেনুল ইসলাম সেখানে এসে তার কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। পপি টাকা দিতে অস্বীকার করলে তাকে মারধর করে গুরুতর আহত করা হয়। আহত অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়। এ ঘটনায় শুক্রবার রাতেই গোবিন্দগঞ্জ থানায় মামলা করেন পপি খাতুন। পরে আজ শনিবার সকালে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত মোহাইমেনুলকে গ্রেফতার করা হয়।’

নীলফামারী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রউপ সিসি নিউজকে জানান, ইতিপূর্বে ম্যাজিস্ট্রেট পপি খাতুন তার স্বামী মোহাইমেনুলের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে নীলফামারী সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Comments are closed.

Red Chilli Saidpur

আর্কাইভ